দুরন্ত

ডোমেইন অথোরিটি নিয়ে বিস্তারিত

ডোমেইন অথোরিটি নিয়ে বিস্তারিত

ডোমেইন অথোরোটি হচ্ছে এমন একটি বিষয় যার উপর আপনার ওয়েবসাইটের সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন স্কোর ড করে। এই ডোমেইন অথোরিটি মুলত MozRank দিয়ে থাকে। এটা ওয়েবসাইট মালিককে তার ওয়েবসাইটটি কোন পর্যায়ে আছে সেটা জানাতে সাহায্য করে। যদিও ডোমেইন অথোরিটি গুগলের এসইও এর কোন অংশ নয় কিন্তু তারপরেও এটা ব্লগারদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারন একটা ওয়েবসাইট র‍্যাংক করবার জন্য অনেকগুলো বিষয় রয়েছে।

যদি আপনার ওয়েবসাইট এর ডোমেইন অথরিটি বেশি হয় তাহলে র‍্যাংক মাধ্যমে বুঝা যায় আপনার ওয়েবসাইট গুগলে রেংক করার সম্ভাবনা বেশি রয়েছে। উদাহরনলণ হিসেবে যদি বলি একই কিওয়ার্ড নিয়ে যদি ৩ ও ১০ ডোমেইন অথোরিটি ওয়েবসাইট আর্টিকেল লেখে তাহলে ৩ ডোমেইন অথোরিটি সাইটের চেয়ে ১০ ডোমেইন অথোরিটি সাইট এর আর্টিকেলটি র‍্যাংক করার সম্ভাবনা বেশি থাকবে। যদিও আর্টিকেল র‍্যাংক আনার জন্য অনেক গুলো বিষয়বস্তু আছে কিন্তু ডোমেইন অথোরিটি মোটামুটি সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ টার্ম।

ডোমেইন অথোরোটি একটি এসইও র‍্যাংকিং সিস্টেম যেটা বিভিন্ন বিষয় এর উপর নির্ভর করে দেয়া হয়। যদি আপনার সাইট এর ভালো ব্যাকলিংক প্রোফাইল, অনেক সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে শেয়ার, ভালো সাইট থেকে সঠিক ব্যাকলিংক এবং নিশ রিলেটেড আর্টিকেল ইত্যাদি থাকে তাহলে আপনার ডোমেইন অথোরিটি অবশ্যই বেশি হবে। উপরে বলা বিষয় গুলো যদি আপনার ওয়েবসাইটে না থাকে তাহলে আপনি কখনোই ডোমেইন অথোরিটি স্কোর বৃদ্ধি করতে পারবেন না।

মাঝে মাঝে Search Engine Result Page (SERP) আপনার ডিএ স্কোর এর উপর ডিপেন্ড করে। যদি আপনার লিংক প্রোফাইল ভালো না থাকে কিন্তু আপনার ওয়েবসাইট ভালো পরিমান র‍্যাংকিং থাকে তাহলে ও আপনার ডিএ বাড়বে। প্রতি মাসে এক থেকে দুই বার ডিএ স্কোর আপটেড হয়। ডিএ স্কোর আপটেটেড হওয়ার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইট কোন ব্যাকলিংক হারিয়েছে কিনা।

ভালো ডোমেইন অথোরিটি কত?

Moz দ্বারা সর্বোচ্চ ডোমেইন অথোরিটি ধরা হয় ১০০. অর্থাৎ ১০০ সবচেয়ে ভালো ডোমেইন অথোরিটি এবং ০ হচ্ছে সবচেয়ে খারাপ ডোমেইন অথোরিটি। যদি আপনার ডোমেইন অথোরিটি ২০ এর চেয়ে কম হয় এটি আপনার ওয়েবসাইট র‍্যাংক এর ক্ষেত্রে তেমন খারাপ প্রভাব ফেলবে না কিন্তু ডোমেইন অথোরিটি ২০ এর বেশি থাকাই ভালো এবং সিও ফ্রেন্ডলি।

কিভাবে ডোমেইন অথোরিটি চেক করা যায়?

যেহেতু ডোমেইন অথোরিটি Moz ওয়েবসাইট দিয়ে দেওয়া হয় তাই ডোমেইন অথোরিটি এই ওয়েবসাইট দিয়া চেক করা ভালো। গুগল ক্রোম মোজ এক্সটেনশন ব্যবহার করে আপনি সহজেই আপনার ওয়েবসাইট এর ডোমেইন অথোরিটি দেখতে পারবেন তাছাড়া মোজ ওয়েবসাইট এর মাধ্যমেও আপনি আপনার ওয়েবসাইটের ডোমেইন অথোরিটি দেখতে পারবেন। আপনি চাইলে Site explorer অনলাইন টুলস দিয়েও ডোমেইন অথোরিটি চেক করে নিতে পারেন। এটি মোজ বার ব্যবহার করে আপনার সাইটের ডোমেইন অথোরিটি কত সেটা দেখাবে।তাই আপনি আপনার সাইটের সঠিক এবং আপটেডেড ডোমেইন অথোরিটি কত সেটা জানার জন্য site explorer সাইটটিও ব্যবহার করতে পারেন। সাইট এক্সপোলার ওয়েবসাইট দিয়ে ডোমেইন অথোরিটি চেক করার অনেকগুলো সুবিধা রয়েছে। আপনি এই টুলস দিয়ে আপনার ডোমেইন এর জন্য থাকা ব্যাকলিংক গুলোর বয়স, কোন পেজ থেকে লিংক করেছেন, কোন ওয়ার্ড ইউজ করে ব্যাকলিংক পেয়েছেন ইত্যাদি বিষয়ে জেনে নিতে পারবেন।

কিভাবে ডোমেইন অথোরিটি স্কোর বাড়ানো যায়?

যদিও এস ইও এর ক্ষেত্রে ডোমেইন অথোরিটি খুবই ইম্পোর্ট্যান্ট একটি বিষয় কিন্তু এটা কোন গুগল অফিশিয়ালি বলা এলগরিদম নয়। মোজ কতৃক আপনার সাইটের লিংকিং প্রোফাইল, অ্যানচর টেক্সট, ইন্টারনাললিংক, গুরুত্বপূর্ণ অথোরিটি সাইটে লিংক আছে কিনা ইত্যাদি বিবেচনা করে আপনার ডোমেইন অথোরিটি স্কোর দিয়ে থাকে। আর একটি আর্টিকেল র‍্যাংক আনার ক্ষেত্রে মোজ এর রিসার্চ এর বিষয় গুলো গুরুত্বপূর্ণ তাই ডোমেইন অথোরিটি একটি গুরুত্বপূর্ণ এসইও বিধায় ভালো যায়। আপনি যদি সার্চ কনসোল থেকে ভাল পরিমাণের ভিজিটর পাওয়ার চিন্তা করছেন তাহলে আপনার সাইটের ডোমেইন অথোরিটি স্কোর বাড়ানোর দিকে নজর দিতে হবে।

এতক্ষন ডোমেইন অথোরিটি কী? কেন ডোমেইন অথোরিটি ইম্পোর্ট্যান্ট? ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি। আপনি ডোমেইন অথোরিটি কি এবং কেন জরুরি এটা জানার পর অবশ্যই আপনার মনে প্রশ্ন জাগছে যে ডোমেইন অথোরিটি কিভাবে বৃদ্ধি করা যায়? সমস্যা এটা নিয়েও আলোচনা করব। ডোমেইন অথোরোটি বাড়ানোর জন্য নিচের বিষয়গুলো খেয়াল করে আপনার সাইটে কাজে লাগেন।

১। কোয়ালিটি আর্টিকেল লেখুন।

২। হাই-কোয়ালিটি ইন্টারলিংক করনেন।

৩। হাই-কোয়ালিটি ওয়েবসাইটে আপনার সাইট লিংক যুক্ত করুন।

৪। অন পেজ এসইও ঠিক করুন।

৫। অথোরিটি সাইট থেকে ব্যাকলিংক নিতে হবেন।

৬। ব্রোকেন লিংক ঠিক করুন।

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

Related Articles

ভাইরাল নিউজ
স্পনসর
বিনোদন
টেকনোলজি
স্বাস্থ্য
স্পনসর